বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ০৭:০২ পূর্বাহ্ন

ঢাকা থেকে প্রকাশিত জাতীয় দৈনিক অগ্নিশিখা পত্রিকা
ঢাকা থেকে প্রকাশিত জাতীয় দৈনিক অগ্নিশিখা পত্রিকা এবং  অনলাইন ও ডিজিটাল মাল্টিমিডিয়া  এর জন্য সম্পূর্ণ  নতুনভাবে সারাদেশ থেকে জেলা, উপজেলা,বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও সরকারি কলেজ,পলিটেকনিকে একযোগে সংবাদকর্মী আবশ্যক বিস্তারিত জানতে ০১৮১৬৩৯৩২২৩

সুজানগরে রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় ইউপি চেয়ারম্যানের হামলায় মহিলাসহ আহত ৫

সুজানগরে রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় ইউপি চেয়ারম্যানের হামলায় মহিলাসহ আহত ৫

সুজানগর(পাবনা)প্রতিনিধি:

সুজানগরে রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় ভায়না ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিন উদ্দিনের হামলায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শান্তর মা, বোন সহ ৫ জন আহত হয়েছে। আহত ব্যক্তিদের সুজানগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।আহত ভায়না গ্রামের আব্দুল মালেক প্রামানিক স্ত্রী ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শান্তর মা শান্তি খাতুন (৪৫), শান্তর বোন সাথী খাতুন (২০), আব্দুর রশিদ প্রামানিকের ছেলে বাদশা (৩৮), আব্দুল মতিন শেখের ছেলে মাসুম শেখ (১৭), আব্দুল গনি শেখের ছেলে আলম শেখ (৩৫)। জানা যায় ভায়না ইউনিয়ন পরিষদের আমিন উদ্দিন মোটরসাইকেল নিয়ে যাচ্ছিল, ঐ সড়ক দিয়ে আলম নামক এক ব্যক্তি তার ছোট ছেলের সাথে করে হেঁটে যাচ্ছিল, আমিন উদ্দিন চেয়ারম্যানের মোটরসাইকেলের সাইট দিতে দেরি হলে, চেয়ারম্যান মোটরসাইকেল থেকে নেমে আলমের ছোট ছেলে কে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিয়ে আলম মারপিট শুরু করে। এই খবর ছড়িয়ে পড়লে চেয়ারম্যানের লোকজন বোমা বিস্ফোরণ করে এলাকায় আতঙ্ক তৈরি করে রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শান্তর মা ও বোন সহ বেশ কয়েকজন বেধড়ক মারধর করে গুরুতর আহত করে। আহত ব্যক্তিদের দেখতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাৎক্ষণিকভাবে দেখতে ছুটে যান, সুজানগর পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা।এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান আমিন উদ্দিনের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে, তার কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এই ঘটনায় সুজানগর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাননান জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2022 thedailyagnishikha.com
Design & Developed BY Hostitbd.Com